পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ

107
পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ

আপনি কি অনলাইনে পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ, পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে চাইছেন,

যদি তাই হয়, 

আপনি সঠিক পোস্টে এসেছেন।

আমি এই পোস্টটিতে আপনাদের সাথে শেয়ার করছি – পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধের ইতিহাস,পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ কাদের মধ্যে হয়েছিল, পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ কত সালে হয় ইত্যাদি।

আমার এই পোস্টটি পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধের  ( ইতিহাসের ) দারুন নোট।  আপনি পরীক্ষায় যদি এই নোটটি  লিখতে পারেন তাহলে আপনি ফুল মার্কস পাবেন।

পোস্টটিকে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মন দিয়ে পড়ার অনুরোধ রইল।

পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ কাদের মধ্যে হয়েছিল

পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ হয়েছিল 1556 সালে মোগল সম্রাট আকবরের অভিভাবক বৈরাম খাঁ ও আদিল শাহ এর মন্ত্রী হিমুর মধ্যে।পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধে হিমু পরাজিত হয়েছিল।।

হুমায়ুনের মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে হিমু দিল্লি ও আগ্রা দখল করেন। হিমু বিক্রমাদিত্য উপাধি নিয়ে নিজেকে দিল্লির সম্রাট বলে ঘোষণা করেন। এই পরিপেক্ষিতে পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ হয়।

পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধের ইতিহাস
পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধের ইতিহাস

পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধের ইতিহাস

আফগানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে হুমায়ুন প্রথম দিকে সাফল্য লাভ করেছিলেন। বুন্দেলখন্ডের রাজা আফগানদের সাহায্য দান করেছিলেন। তাই তিনি প্রথমে বুন্দেলখন্ডের প্রসিদ্ধ কালিঞ্জর দুর্গ অবরোধ করলেন।

কিন্তু রাজ্যের পূর্বাঞ্চলের আফগানগন অত্যাধিক উদ্ধত হয়ে উঠলে তাদেরকে দমন করার উদ্দেশ্যে তিনি কালিঞ্জর দুর্গের অবরোধ উঠিয়ে নিলেন।

দৌরাহ এর যুদ্ধে আফগানদের পরাজিত করে চুনার দুর্গ অবরোধ করেন। কিন্তু শের খাঁর মৌখিক আনুগত্য প্রদর্শনে সন্তুষ্ট হয়ে’ হুমায়ুন দুর্গটি শের খাঁর অধীনে রাখেন এবং গুজরাটের সুলতানের বিরুদ্ধে অগ্রসর হলেন।

আর এই সুযোগে শের খাঁ নিজ শক্তি বাড়িয়ে হুমায়ুনের সর্বাপেক্ষা শক্তিশালী শত্রুতে পরিণত হয়েছিল। বহু দুঃখ দুর্দশার মধ্যে দিয়ে তিনি শেষে অমরকোটে আশ্রয় পেলেন। তারপর পারস্যের শাহ তহমাই এর সাহায্যে তিনি কাবুল ও কান্দাহার জয় করলেন ১৫৪৫ সালে।

ইতিমধ্যে শের শাহের মৃত্যুর পর হিন্দুস্থানের প্রভুত্ব নিয়ে শূর রাজপরিবারে আন্তবিবাদ শুরু হয়। প্রাদেশিক শূর শাসনকর্তারা একে একে স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। এই সুযোগে হুমায়ুন অনায়াসে লাহোর অধিকার করলেন এবং ১৫৫৫ সালে তিনি শূর সুলতান সিকান্দার শূর কে পরাস্ত করে দিল্লি ও আগ্রা পুনরুদ্ধার করেন।।

এইভাবে জীবনের শেষ দিকে তিনি তার হৃত সাম্রাজ্যের কতকাংশ পুনরুদ্ধার করে পুনরায় মোগল সাম্রাজ্যের প্রাধান্যের সূত্রপাত করলেন।

কিন্তু তার মৃত্যুতে ১৫৫৬ সালে আফগান প্রধানমন্ত্রী হিমু দিল্লি দখল করলে পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ শুরু হয় আকবরের সঙ্গে। এই যুদ্ধে হিমু পরাজিত হন। আর এই যুদ্ধে মুঘল – আফগান সংঘর্ষের পরিসমাপ্তি ঘটে।


আরও পড়ুন ক্লিক করে –

আকবরের ভূমি রাজস্ব ব্যবস্থা

আকবরের রাজপুত নীতি

ঔরঙ্গজেবের ধর্মীয় নীতি


আশা করি এই পোস্টটি থেকে আপনি –  পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ,পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধের ইতিহাস,পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধ কাদের মধ্যে হয়েছিল সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।

আশা করি পানিপথের দ্বিতীয় যুদ্ধের এই পোস্টটি আপনার অনেক উপকারে এসেছে।

আপনাকে জানাই অনেক ধন্যবাদ এই পোস্টটি পড়ার জন্য।

এই পোস্টটি আপনার উপকারে আসলে বন্ধুবান্ধবের সাথে শেয়ার করার অনুরোধ রইল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here